চলতি মাসের ১৯ মে ভূমি সেবা সপ্তাহ শুরু

small top news

নিউজ ডেস্কঃ
ভূমি মন্ত্রণালয় চলতি মাসে পাঁচ দিনের ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ’ উদযাপন করতে যাচ্ছে।
সারাদেশে বিভাগ থেকে ইউনিয়ন পর্যায় পর্যন্ত কল সেন্টারের মাধ্যমে অনলাইন এবং ডাকযোগে ভূমি সেবাকে গুরুত্ব দিয়ে ভুমি সেবা সপ্তাহ উদযাপন করা হবে।

গতকাল বৃহস্পতিবার ভূমি মন্ত্রণালয়ের এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। ১৯ মে শুরু হচ্ছে ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ’। ভূমি মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আগামী ২৩ মে পর্যন্ত সারাদেশে এ সপ্তাহ উদযাপন করা হবে। অনলাইন।

এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, আগামী ১৯ থেকে ২৩ মে ‘ভূমি অফিসে না এসেই ডিজিটাল ভূমি সেবা গ্রহণ’ প্রতিপাদ্যে দেশের আট বিভাগে ‘ভূমি সেবা সপ্তাহ-২০২২’ উদযাপন করা হবে।

এবার ‘১৬১২২ নম্বরে কল সেন্টারের মাধ্যমে ভূমিসেবা’ এবং ‘ডাকযোগে ভূমিসেবা’ বিষয় দুটিকে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়া হচ্ছে।

রাজধানীর ওসমানী স্মৃতি মিলনায়তনে দেশব্যাপী এ কার্যক্রমের উদ্বোধন করবেন ভূমিমন্ত্রী সাইফুজ্জামান চৌধুরী।

ভূমি ব্যবস্থাপনায় জনসচেতনতা বাড়াতে এবং হয়রানি কমিয়ে এ কাজে দক্ষতা ও গতিশীলতা আনতে মন্ত্রণালয় সেবা সপ্তাহের এই আয়োজন করেছে।

দেশের ৬৪ জেলা এবং ৫০৭ উপজেলার রাজস্ব সার্কেল, ইউনিয়ন ও পৌর ভূমি অফিসে এই সপ্তাহ উদযাপন করা হবে বলে মন্ত্রণালয় জানিয়েছে।

বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, ভূমি সেবা সপ্তাহে দেশের প্রতি জেলা, উপজেলা ও ইউনিয়নের সংশ্লিষ্ট ভূমি অফিস, স্থানীয় সম্মেলন কক্ষ কিংবা সুবিধাজনক স্থানে ক্যাম্প করে সেবা বুথ থাকছে। ওই বুথে অগ্রাধিকার ভিত্তিতে সেবাগ্রহীতারা ভূমি বিষয়ে নানা ধরনের পরামর্শ পাবেন এবং কী কী ভূমি সেবা আছে সে সম্পর্কেও জানতে পারবেন।

জেলা পর্যায়ে অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে ‘অনলাইন রেজিস্ট্রেশন’কে ভূমি সেবায় সবার আগে রাখা হয়েছে। এছাড়া ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়া সংক্রান্ত কার্যক্রম, ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, নিষ্পত্তিকৃত এলএ কেইসের ক্ষতিপূরণের চেক দেওয়া, খতিয়ানের সার্টিফাইড কপি প্রাপ্তির আবেদন গ্রহণ ও তাৎক্ষণিকভাবে তা সরবরাহ, এবং অনলাইনে মৌজা ম্যাপ ডাক বিভাগের মাধ্যমে সরবরাহ করা ইত্যাদিও গুরুত্ব পাচ্ছে জেলা পর্যায়ের ভূমি সেবায়।

উপজেলা পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবায় বিশেষ গুরুত্ব পাচ্ছে ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন, ই-নামজারির আবেদন গ্রহণ, ভূমিহীনদের মধ্যে বন্দোবস্তকৃত জমির কবুলিয়ত ও দলিল হস্তান্তর। এছাড়াও ভূমি অফিসের প্রবেশমুখে নামজারির প্রবাহচিত্র স্থাপন করার ব্যবস্থা গ্রহণ, নামজারি/জমাভাগ/খারিজ করতে মোট খরচ এক হাজার একশত সত্তর টাকা লিখিত সাইনবোর্ড লাগানোর ব্যবস্থা গ্রহণ এবং এসব সেবার ব্যানার ও প্ল্যাকার্ড স্থাপন করার বিষগুলো।

ডিসিআর ও খতিয়ান দেয়ার উদ্যোগ নেয়া সেবাকে ইউনিয়ন পর্যায়ে যেসব ভূমি সেবায় বিশেষ গুরুত্ব দেয়া হয়েছে এবারের সপ্তাহে। এ ছাড়াও ভূমি উন্নয়ন কর আদায় ও অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর আদায়ের লক্ষ্যে রেজিস্ট্রেশন, অনলাইনে ভূমি উন্নয়ন কর দেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন সম্পর্কে ব্যাপক প্রচার এবং ভূমি সেবা সংক্রান্ত বুকলেট ও লিফলেট বিতরণ ইত্যাদিও থাকছে পাঁচ দিনের এই ভূমি সপ্তাহে।

0Shares

Leave a Reply

Your email address will not be published.