২৮শে চৈত্র, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,১১ই এপ্রিল, ২০২১ ইং,রবিবার,সকাল ৬:২৭

মার্চ ১৮, ২০২১
অপারেশন সার্চলাইটঃ মূল প্রনেতা পাকিস্তানের খাদিম রাজার এডিসি ছিলেন বাঙ্গালী শাহেদুল আনাম

।। সাংবাদিক আইয়ুব ভুইয়া।।

ডেইলি স্টারের এসোসিয়েট এডিটর ব্রিগেডিয়ার জেনারেল (অব.) শাহেদুল আনাম খান ১৯৭১ সালে পাকিস্তানের কুখ্যাত সামরিক কর্মকর্তা মেজর জেনারেল খাদিম হোসেন রাজার এডিসি ছিলেন। জেনারেল রাজা ২৫ মার্চ রাতে নিরস্ত্র বাঙ্গালি জাতির ওপর পরিচালিত বর্বরোচিত “ অপারেশন সার্চলাইট “ অভিযানের মূল প্রনেতা। ১৯৭১ সালের আজকের এই দিনে জেনারেল রাজা ও জেনারেল রাও ফরমান আলী ইতিহাসের নৃশংসতম গণহত্যার এই পরিকল্পনা চূড়ান্ত করেন। জেনারেল খাদিম হোসেন রাজা তার এডিসি শাহেদুল আনাম খানের প্রশংসা করে লিখেছেন “আমার বাঙ্গালী এডিসি ছিলো চমৎকার একজন তরুণ। তার ছিলো মুসলিম লীগের সাথে গভীর সম্পর্ক। কলকাতার বিশিষ্ট মুসলিম লীগার মাওলানা আকরাম খানের নাতি ছিলো সে। ঢাকার একটি অভিজাত পরিবারের কর্ণেল আব্দুল কাইয়ুমের বোনকে সে বিয়ে করেছিলো।” (এ স্ট্রেঞ্জার ইন মাই ওউন কান্ট্রি: ইস্ট পাকিস্তান,১৯৬৯-১৯৭১, লেখক: মেজর জেনারেল খাদিম হোসেন রাজা, অনুবাদ: শাহরীয়ার শরীফ, পৃষ্ঠা:৮৬) প্রথম আলো সম্পাদক মতিউর রহমান সম্পাদিত ” ১৯৭১: শত্রু ও মিত্রের কলামে ” গ্রন্থে খাদিম হোসেন রাজা লিখেছেন ” ফরমান ও আমি ১৯৭১ সালের ১৮ মার্চ সকালে আমার কার্যালয়ে ওই পরিকল্পনা (অপারেশন সার্চলাইট) নিয়ে আলোচনার সিদ্ধান্ত নিই। আমি আমার স্ত্রীর সাহায্য নিয়ে আমার বাঙালি এডিসিকে ব্যস্ত ও আমার কার্যালয় থেকে দূরে রাখি। আমি চাইনি, আমার কার্যালয়ে সারাটা সকাল ফরমান আমার সঙ্গে কী করছেন, এ বিষয়ে তার মনে সন্দেহ উঁকি দিক। কারণ সময়টা এধরনের সভার জন্য উপযুক্ত ছিলনা ” (এ স্ট্রেঞ্জার ইন মাই ওন কান্ট্রি, লেখক: মে. জেনারেল খাদিম হোসেন রাজা, অনুবাদ: মিজান মল্লিক ও আজিজুল রাসেল, পূষ্ঠা: ১৫)।
জেনারেল খাদিম হোসেন রাজা ১৯৭১ সালের ৬ মার্চ বঙ্গবন্ধুকে হুমকি দিয়ে বলেছিলেন, “৭ মার্চের ভাষণে স্বাধীনতা ঘোষণা করা হলে সেনাবাহিনী সমাবেশে গুলি চালাবে। প্রয়োজনে সমাবেশে জঙ্গি বিমান থেকে বোমা বর্ষণ করা হবে।”
শাহেদুল আনাম খানের আগে মেজর মইনুল হোসেন চৌধুরী (পরবর্তীতে মেজর জেনারেল ও সাবেক তত্ত্বাবধায়ক সরকারের উপদেষ্টা) খাদিম হোসেন রাজার এডিসি ছিলেন। মইনুল হোসেন চৌধুরী পাকিস্তানের বিরুদ্ধে বিদ্রোহ করে মুক্তিযুদ্ধে যোগ দিলেও শাহেদুল আনাম খান তা করেননি। তিনি তার বস খাদিম হোসেন রাজার সঙ্গে পাকিস্তান চলে যান। স্বাধীনতার পর বাংলাদেশে এসে আবার সেনাবাহিনীতে যোগ দেন। ব্রিগেডিয়ার জেনারেল পর্যন্ত পদোন্নতি পান। জাতিসংঘ শান্তিরক্ষী মিশনেও গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। অবসর গ্রহণের পর ডেইলি স্টারে যোগ দেন। ২০০৭ সালে পাকিস্তান সরকারের আমন্ত্রণে সেদেশ সফরকারী বাংলাদেশী সাংবাদিক প্রতিনিধিদলের নেতৃত্ব দেন শাহেদুল আনাম খান। সাংবাদিকতায় কোন অভিজ্ঞতা না থাকলেও শুধু নামে মিল থাকায় আবুল মনসুর আহমেদের পুত্রের বদান্যতায় মাওলানা আকরাম খাঁর নাতি রাতারাতি দেশের ঐতিহ্যবাহী ইংরেজি দৈনিকের এসোসিয়েট এডিটর হয়ে যান।

0Shares

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ ওয়াহিদুজ্জামান
ফোনঃ +৮৮-০১৭৪২৩৪১৫২৩
ইমেইলঃ wzaman288@gmail.com

স্মরনিকা
২৪৭, টুটপাড়া মেইন রোড,
খুলনা-৯১০০, বাংলাদেশ ।
মোবাইলঃ+ ৮৮-০১৯২২৫৫৭৮৯৬
ইমেইলঃ dkhulnanews@gmail.com

কপিরাইট © ২০১৭ |
সর্বস্বত্ব ® স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ডিজিটালখুলনা.কম |
উন্নয়নে Real IT Solution