৫ই আষাঢ়, ১৪২৮ বঙ্গাব্দ,১৯শে জুন, ২০২১ ইং,শনিবার,সন্ধ্যা ৬:৩১

মার্চ ১৫, ২০২১
বিশ্বের সৃষ্ট মোট বর্জ্যের ১০ শতাংশই প্লাস্টিক বর্জ্য।।যা পরিবেশে স্থায়ীভাবে ক্ষতি করে

।। সম্পাদকীয় ।।

বিশ্বের প্রতিদিন সৃষ্ট মোট বর্জ্যের ১০ শতাংশই প্লাস্টিক বর্জ্য। বিশ^ অর্থনৈতিক ফোরামের প্রতিবেদন অনুযায়ী বর্তমানে প্রতিবছর প্রায় ১৩ মিলিয়ন টন প্লাস্টিক বর্জ্য সাগরে পতিত হওয়ার ফলে ২০৫০ সালে সাগরে মাছের চেয়ে প্লাস্টিকের পরিমাণ বেশি হবে। বিশ^জুড়ে প্রতি মিনিটে প্রায় ৩৩ হাজার প্লাস্টিকের বোতল সাগরে গিয়ে পড়ছে। প্রতিকেজি প্লাস্টিক পণ্য উৎপাদনে দুই কেজি কার্বন-ডাই-অক্সাইড উৎপন্ন হয়। আমাদের ব্যবহৃত প্লাস্টিক পণ্য পরিবেশে মিশে যেতে ২০ থেকে ৫০ বছর সময় লাগে।

এ দিকে বিশ্বের প্রথম দেশ হিসেবে বাংলাদেশ ২০০২ সালে পলিথিন ব্যাগ নিষিদ্ধের বিধান করেছিল।আদৌ মানছে তা কতজন? প্রায় দুই দশক পর সাম্প্রতিক এক গবেষণায় দেখা যাচ্ছে, দেশের পলিথিন ও প্লাস্টিক বর্জ্যের ৮৭ শতাংশই পরিবেশবান্ধব সঠিক ব্যবস্থাপনার মধ্য দিয়ে ফেলা হয় না। এই বর্জ্য পরিবেশের ব্যাপক ক্ষতি করছে।

বিশ্বের নয়জন গবেষকের এক পর্যালোচনা প্রতিবেদনে এ তথ্য উঠে এসেছে। এর আগে ২০১৫ সালে প্রকাশিত এক গবেষণা বলেছিল, সমুদ্রোপকূলে প্লাস্টিক বর্জ্য অব্যবস্থাপনার দিক থেকে বাংলাদেশ বিশ্বে ১০ম।

প্লাস্টিক দূষণ হল পরিবেশ কর্তৃক প্লাস্টিক পদার্থের আহরণ যা পরবর্তীতে যে বন্যপ্রাণ, বন্যপ্রাণ আবাসস্থল, এমনকি মানবজাতীর ওপর বিরূপ প্রভাব সৃষ্টি করে৷ আকারের উপর ভিত্তি করে, মাইক্রো-, মেসো-, অথবা ম্যাক্রোবর্জ্য এই তিনভাগে প্লাস্টিক দূষণকে শ্রেণীকরণ করা হয়।নিয়মিত প্লাস্টিক পদার্থের ব্যবহার প্লাস্টিক দূষণের মাত্রাকে বাড়িয়ে দিচ্ছে৷ পলিথিন ব্যাগ, কসমেটিক প্লাস্টিক, গৃহস্থালির প্লাস্টিক, বাণিজ্যিক কাজে ব্যবহৃত প্লাস্টিক পণ্যের বেশিরভাগই পুনঃচক্রায়ন হয় না৷ এগুলো পরিবেশে থেকে বর্জ্যের আকার নেয়৷ মানুষের অসচেতনতাই প্লাস্টিক দূষণের প্রধান কারণ ৷ প্লাস্টিক এমন এক রাসায়নিক পদার্থ যা পরিবেশে পচতে অথবা কারখানায় পুনঃপ্রক্রিয়াকরণ করতে প্রচুর সময় লাগে ৷ তাই একে “অপচ্য পদার্থ” হিসেবে আখ্যা দেওয়া হয়।তাই প্লাস্টিক বর্জ্য পরিবেশে দীর্ঘস্থায়ী ক্ষতিকর প্রভাব সৃষ্টি করে থাকে।

0Shares

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ ওয়াহিদুজ্জামান
ফোনঃ +৮৮-০১৭৪২৩৪১৫২৩
ইমেইলঃ wzaman288@gmail.com

স্মরনিকা
২৪৭, টুটপাড়া মেইন রোড,
খুলনা-৯১০০, বাংলাদেশ ।
মোবাইলঃ+ ৮৮-০১৯২২৫৫৭৮৯৬
ইমেইলঃ dkhulnanews@gmail.com

কপিরাইট © ২০১৭ |
সর্বস্বত্ব ® স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ডিজিটালখুলনা.কম |
উন্নয়নে Real IT Solution