১৯শে ফাল্গুন, ১৪২৭ বঙ্গাব্দ,৩রা মার্চ, ২০২১ ইং,বুধবার,সকাল ৬:০৫

ফেব্রুয়ারি ২২, ২০২১
মহান মুক্তিযুদ্ধের ইতিহাসে ফেনী
॥ সাংবাদিক আইয়ুব ভুঁইয়া ॥ 
‘ফেনী এক মফস্বল শহর। লোকসংখ্যা ১৫ হাজারের উপর হলেও এটা বড় বাজার বৈ আর কিছু নয়। হাটের দিন যেসব লোক রাস্তাঘাট ভরে তোলে তারা আশেপাশের গ্রামের মানুষ। কেনাবেচার জন্য তাদের আসা। এইদিন, ৬ এপ্রিল ১৯৭১, ছিল বিশেষ হাটবার। মানুষ, গরু ও নানারকম পণ্যের ভিড়ে রাস্তা ঠাসাঠাসি হয়ে আছে। ক্ষত-বিক্ষত করে দেয়ার মতো হাড়মাংসের মানব লক্ষ্যবস্তুর কোন অভাব বুলেটের হয়নি।’ মার্কিন মিশনারি জিম ম্যাকিনলে তার ‘ডেথ টু লাইফ : বাংলাদেশ’ গ্রন্থে এভাবে ১৯৭১ সালের ৬ এপ্রিল দুপুরে ফেনীর ওপর পাকিস্তানী জঙ্গী বিমানের বর্বরোচিত হামলার বর্ণনা দিয়েছেন। বাংলাদেশের স্বাধীনতা সংগ্রামে একটি আঞ্চলিক যুদ্ধের ওপর কোন বিদেশীর লেখা এটিই একমাত্র বই। তিনি আরো লিখেছেন ‘তবে কিছু সাহসী লোক ছিলেন যারা দিশেহারা হননি। তাদের একজন খাজা আহমেদ, যিনি এলাকার অগ্রণী রাজনীতিবিদ এবং জাতীয় সংসদের নবনির্বাচিত সদস্য। আহতদের পরিচর্যা ব্যবস্থা সংগঠিত করেন তিনি। ছিন্ন দেহের আহতদের নিয়ে আসা হলো পঁচিশ শয্যাবিশিষ্ট ক্ষুদ্র হাসপাতালে। বহু বছর ধরে ৬ লাখ অধিবাসীর ফেনী মহকুমায় এটাই ছিল একমাত্র হাসপাতাল এবং এখন এই প্রতিষ্ঠান সবচেয়ে বড় চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন।’ বইটির বাংলা অনুবাদ করেছেন মুক্তিযুদ্ধ জাদুঘরের ট্রাস্টি বরেণ্য লেখক মফিদুল হক। নাম দিয়েছেন ‘যুদ্ধদিনের কথা’। এই বই থেকে জানা যায়, মুক্তিযুদ্ধের সময় ফেনীর মহকুমা প্রশাসক (এসডিও) ছিলেন মোহাম্মদ বেলাল খান এবং সামরিক আইন প্রশাসক ছিলেন ক্যাপ্টেন জিয়া। দু’জনই পাকিস্তানী। জিম ম্যাকিনলে মার্কিন নাগরিক হওয়ায় দু’জনই তাকে সমিহ করে চলতো। মার্কিন সপ্তম নৌবহর আগমনের গুজবের সময় তাদের কাছে জিম ম্যাকিনলের কদর আরও বেড়ে যায়। তার ভাষ্যমতে ১৯৭১ সালের ৭ মার্চ ঢাকার রেসকোর্স ময়দানে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ভাষণের পর থেকেই ফেনীর জনগণ যুদ্ধের প্রস্তুতি নিতে শুরু করে।

১৯৭১ সালে বাংলাদেশে মুক্তিযুদ্ধ চলাকালে ফেনীতে অবস্থানকারী মার্কিন মিশনারী জিম ম্যাকিনলে তাঁর প্রত্যক্ষ অভিজ্ঞতাসমূহ লিপিবদ্ধ করেছেন এই গ্রন্থে। কর্মসূত্রে বাঙালী জীবনের সঙ্গে তার ছিল নিবিড় ঘনিষ্ঠতা। বাংলা ভাষায় তিনি বিশেষ দক্ষ এবং যুদ্ধকালীন অবরুদ্ধ নয় মাস ব্যাপকভাবে ঘুরে বেড়িয়েছেন দেশের বিভিন্ন স্থানে। পাকবাহিনী তাকে কিছুটা সমীহ করে চললেও যুদ্ধরত দেশের নানা বিপদের আশংকা থেকে মুক্ত ছিল না তার অবস্থান। তা সত্ত্বেও তিনি সপরিবারে থ%

0Shares

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ ওয়াহিদুজ্জামান
ফোনঃ +৮৮-০১৭৪২৩৪১৫২৩
ইমেইলঃ wzaman288@gmail.com

স্মরনিকা
২৪৭, টুটপাড়া মেইন রোড,
খুলনা-৯১০০, বাংলাদেশ ।
মোবাইলঃ+ ৮৮-০১৯২২৫৫৭৮৯৬
ইমেইলঃ dkhulnanews@gmail.com

কপিরাইট © ২০১৭ |
সর্বস্বত্ব ® স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ডিজিটালখুলনা.কম |
উন্নয়নে Real IT Solution