শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতার সাথে মেধাবীদের নিয়োগ দিতে হবেঃ রামপালে খুলনা সিটি মেয়র

সাবেক দুর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও ত্রান প্রতিমন্ত্রী খুলনা সিটি
কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন লোভ লালসার উর্ধে
থেকে যে কোন শিক্ষা প্রতিষ্ঠান পরিচালিত করলে সেই প্রতিষ্ঠানের
সুনাম অর্জিত হয়। দুর্নীতি করে সুনাম অর্জন করা যায়না। শিক্ষার
গুনগত মান উন্নয়নে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে স্বচ্ছতার সাথে মেধাবীদের
নিয়োগ দিতে হবে। গত কয়েক বছর ধরে আমি ও আমার সহধর্মীনি
উপমন্ত্রী হাবিবুন নাহার রামপাল- মোংলার বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে
কোন কিছুর বিনিময় ছাড়া বেছে বেছে মেধাবী শিক্ষক নিয়োগ
দিয়েছি। যাতে আগামী নুতন প্রজন্ম সুশিক্ষায় শিক্ষিত হতে পারে।
একজন শিক্ষক চাকুরী জীবন শেষে যখন অবসরে যান তখন তিনি খালি
হাতেই যান। সরকারের দেয়া অবসর ভাতা পেতে দেরী হয়। তখন বেসরকারি
শিক্ষক- কর্মচারী কল্যান তহবীলের যে টাকা তিনি হাতে পান তা দিয়ে
অনেক উপকৃত হন।
তিনি বলেন বর্তমান সরকার ক্ষমতায় আসায় পর রামপাল -মোংলায়
শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের যতো উন্নয়ন হযেছে তা আর কোন সরকারের সময়
হয়নি। বিএনপি- জামায়াত ক্ষমতায় আসার পর প্রতিহিংসা পরায়ন হয়ে
রামপাল -মোংলার কয়েকটি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন বরাদ্দ কেটে নিয়ে
যায়। ১৯৯৬ সালে আওয়ামীলীগ ক্ষমতায় আসার পর আমি কেটে নেয়া
উন্নয়ন বরাদ্দ ফিরিয়ে এনে সেই সব শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের উন্নয়ন
করেছি। শুধু শিক্ষা প্রতিষ্ঠান নয় মসজিদ, মন্দির, মাদ্রাসা, রাস্তা-ঘাট,
ব্রীজ, কালভার্টসহ সব ক্ষেত্রে ব্যাপক উন্নয়ন হয়। রামপাল -মোংলার মানুষ
এখন সেই উন্নয়নের সুফল ভোগ করছে।
তিনি গতকাল ২২ জুলাই শনিবার সকাল সাড়ে ১০টায় রামপাল
উপজেলার কাশিপুর মাধ্যমিক বিদ্যালয় অডিটোরিয়ামে উপজেলা
বেসরকারি মাধ্যমিক শিক্ষক/ কর্মচারী সমিতির উদ্যেগে তাকে দেয়া
সংবর্ধনা ও অবসর প্রাপ্ত শিক্ষক / কর্মচারীদের কল্যান চেক বিতরন ও বেলা
সাড়ে ১২ টায় জাতীয় শিক্ষা সপ্তাহ-২০২৩ জাতীয় পর্যায় ইসলামাবাদ
ফাজিল ডিগ্রি মাদ্রাসা শ্রেষ্ট মাদ্রাসা নির্বাচিত হওয়ায় ও
গভর্নিং বডির সভাপতি খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার
আব্দুল খালেক মেয়র নির্বাচিত হওয়ায় তাকে সংবর্ধণা ও অভিভাবক

সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন। উপজেলা শিক্ষক
সমিতির সভাপতি ফরহাদ হোসেন আকুঞ্জির সভাপতিত্বে কল্যান চেক
বিতরন অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন রামপঅর উপজেলা
চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম হোসেন, মাধ্যমিক ও ্ধসঢ়;উচ্চ্ধসঢ়; শিক্ষা খুলনা
অঞ্চলের পরিচালক শেখ হারুনার রশিদ। বক্তব্য রাখেন সাবেক উপজেলা
চেয়ারম্যান অধ্যাপক মোল্লা আ, রউফ, শিক্ষক সমিতির সভাপতি শেখ
নিজাম উদ্দিন আহমেদ, উপজেলা শিক্ষক সমিতির সাধারন সম্পাদক মো.
বিল্লাল হোসেন। এ সময় উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান নুরুল হক লিপন,
সাবেক ইউপি চেয়াম্যান আলহাজ জামিল হাচান জামু, জেলা পরিষদ
সদস্য মনির আহমেদ প্রিন্স, শেখ আ. মান্নান, হাওলাদার মোজাহারুল
হক সহ বিভিন্ন বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষকগন। এরপর বেলা সাড়ে ১২ টায়
ইসলামাবাদ ফাজিল ডিগ্ধিসঢ়;্র মাদ্রাসায় সংসবর্ধনা সভায় সভাপিত্ব
করেন এসএম নুরুজ্জামান। এসময় বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন
মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা খুলনা অঞ্চলের পরিচালক প্রফেসর শেখ হারনুর রশিদ।
অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অধ্যক্ষ মুহা ইউনুছ আলী, অধ্যক্ষ মকবুল
হোসেন খান, মাও. খলিলুর রহমান, প্রভাষক আল আমীন, এনামুল বাশার
কুদরতি, মাওলানা হুমায়ুন কবীর, হাওলাদার আ. মান্নান, মো. আবুল
কালাম, মো. আল আমীন। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান শেখ মোয়াজ্জেম
হোসেন, উপজেলা আওয়ামীলীগ সভাপতি আব্দুল ওহাব, অধ্যাপক মোল্লা
আ. রঊফ, শেখ নিজাম উদ্দিন আহমেদসহ বিভিন্ন মাদ্রাসার অধ্যক্ষ,
শিক্ষকবৃন্দ, রাজনৈতিক ব্যক্তি, অভিভাবক ও আমন্ত্রিত সুধী মন্ডলী
উপস্থিত ছিলেন। সভায় বিশিষ্ট ঠিকাদার বড়দিয়া গ্রামের বাসিন্দা
সাবেক ছাত্রলীগ নেতা সাইফুল ইসলাম ও তার ভাই ইউপি সদস্য সোহাগ
শেখ মাদ্রাাসার সিসি ক্যামেরা ক্রয়ের জন্য ৫০ হাজার টাকার ছেক
হস্তান্তর করেন।খবরঃ বিজ্ঞপ্তির