শস্য বহনকারী প্রথম জাহাজটি ইউক্রেন ছেড়েছে

বিদেশ ডেস্কঃ
রাশিয়ার সঙ্গে যুগান্তকারী চুক্তির অধীনে শস্য বহনকারী প্রথম জাহাজটি ইউক্রেন ছেড়ে গেছে। তুর্কি পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় ও ইউক্রেনের কর্মকর্তারা জানিয়েছেন, স্থানীয় সময় সোমবার (১ আগষ্ট) ভোরে জাহাজটি দক্ষিণাঞ্চলীয় ওডেসা বন্দর ছেড়েছে।

ব্রিটিশ সংবাদমাধ্যম বিবিসির প্রতিবেদনে এই তথ্য পাওয়া গেছে।

চুক্তির অধীনে ইস্তাম্বুলে প্রতিষ্ঠিত জয়েন্ট কো-অর্ডিনেশন সেন্টার বলেছে, লেবাননে উদ্দেশ্যে ওডেসা বন্দর ছেড়েছে সিয়েরা লিওনের পতাকাবাহী জাহাজ রেজোনি। জাহাজটি প্রায় ২৬ হাজার টন ভুট্টা বহন করছে এবং মঙ্গলবার পরিদর্শনের জন্য তুর্কি জলসীমায় পৌঁছবে বলে আশা করা হচ্ছে।

ইউক্রেনের অবকাঠামো মন্ত্রী আলেকজান্ডার কুব্রাকভ ফেসবুকে লিখেছেন, আজ ইউক্রেন, বিশ্বের ক্ষুধা প্রতিরোধে আরেকটি পদক্ষেপ নিয়েছে।

কুব্রাকভ জানান, আগামী সপ্তাহে ওডেসা অঞ্চলের বন্দরে ১৬টি অন্য জাহাজ বিভিন্ন গন্তব্যে যাওয়ার জন্য অপেক্ষা করছে।

জাতিসংঘ মহাসচিব আন্তোনিও গুতেরেস শস্য রপ্তানি শুরু হওয়াকে স্বাগত জানিয়েছেন। চুক্তি বাস্তবায়নে কাজ করার জন্য তুরস্কের ভূমিকার জন্য প্রশংসাও করেছেন গুতেরেস।

গত মাসের জাতিসংঘ এবং তুরস্কের মধ্যস্থতায় পুনরায় শস্য রপ্তানির চুক্তিতে সম্মত হয় রাশিয়া- ইউক্রেন। এই চুক্তিটি ১২০ দিনের জন্য স্থায়ী হবে। উভয় পক্ষ সম্মত হলে এটির মেয়াদ আবারো বাড়ানো যেতে পারে। তথ্যঃ অনলাইন।

ইউক্রেনের শস্যের অবরোধ বিশ্বব্যাপী খাদ্য সংকটে দেখা দেয়, দামও বেড়েছে গম-ভিত্তিক পণ্য, ভোজ্য তেল এবং সারের। ইউক্রেন থেকে পুনরায় শস্য রপ্তানি শুরুর ফলে বৈশ্বিক খাদ্য সংকট এবং শস্যের দাম কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।