মাদক সমাজ, জাতি ও মেধাকে নষ্ট করে দেয়ঃ খুলনা সিটি মেয়র

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, মাদক সমাজ, জাতি ও মেধাকে নষ্ট করে দেয়। মাদকের বিরুদ্ধে সবাইকে সোচ্চার হতে হবে। শিক্ষার্থীদের সুশিক্ষা নিশ্চিত করার পাশাপাশি মাদকের মতো ভয়াবহ সমস্যা থেকে তাদের দূরে রাখার ক্ষেত্রেও শিক্ষক ও অভিভাবকদের দায়বদ্ধতা রয়েছে। একমাত্র খেলাধুলাই পারে মাদক থেকে সকলকে দূরে রাখতে।

তিনি আজ (বুধবার) সকালে খুলনা আদ-দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজের অডিটোরিয়ামে ‘মাদক ও ডিজিটাল আসক্তিমুক্ত সমাজ গঠনে শিক্ষার্থী ও সুশীল সমাজের ভূমিকা’ শীর্ষক আলোচনা সভা ও সংবর্ধনা অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে একথা বলেন। আদ-দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজ ও বাতিঘর (দ্যা লাইট হাউস) এর সহযোগিতায় খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তর এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।
সিটি মেয়র বলেন, মাদকদ্রব্য অপব্যবহার ও অবৈধ পাচার একটি বহুমাত্রিক সমস্যা। মাদকের ভয়াবহ থাবা থেকে দেশ ও জাতিকে রক্ষা করতে এ সংক্রান্ত আইনের কঠোর প্রয়োগ করতে হবে। মাদকবিরোধী প্রচার-প্রচারণাকে আরো জোরদার করা প্রয়োজন। তিনি আরও বলেন, স্বাধীনতা পরবর্তী সময়ে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মাদকমুক্ত সমাজ গঠনের লক্ষ্যে মাদকের লাইসেন্স বাতিল করেছিলেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দুর্নীতি ও মাদকের বিরুদ্ধে জিরো টলারেন্স নীতি ঘোষণা করেছেন। এই নীতি নিয়ে আমরা মাদকের বিরুদ্ধে কাজ করে যাচ্ছি। ডিজিটাল আসক্তির বিষয়ে তিনি বলেন, ডিজিটাল আসক্তির করণে নানা রকম আপরাধ বেড়ে যাচ্ছে। অনেক পরিবার ভেঙ্গে যাচ্ছে। যথাযথ জ্ঞান না হওয়া পর্যন্ত ছেলেমেয়েদের মোবাইলফোন হাতে না দেওয়ার জন্য মেয়র অভিভাবকদের প্রতি আহবান জানান।

খুলনা আদ-দ্বীন আকিজ মেডিকেল কলেজের অধ্যক্ষ অধ্যাপক ডাঃ মোঃ আশফাকুর রহমানের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান আলোচক ছিলেন খুলনা মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের অতিরিক্ত পরিচালক মোঃ আহসানুর রহমান। অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন খুলনা বিভাগীয় স্বাস্থ্য দপ্তরের পরিচালক ডাঃ মোঃ মনজুরুল মুরশিদ, ইসলামী ব্যাংকের খুলনা জোনের প্রধান মোঃ হাবিবুর রহমান ও খালিশপুর থানা অফিসার ইনচার্জ শেখ মুনীর উল গীয়াস। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ অধিদপ্তরের উপপরিচালক মোঃ মিজানুর রহমান। অনুষ্ঠানটি সঞ্চালনা করেন বাতিঘর (দ্যা লাইট হাউস) এর উপদেষ্টা এ্যাডভোকেট শেখ অলিউল ইসলাম।

অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ক্ষেত্রে অবদান রাখার জন্য হ্যামকো ইন্ডাস্ট্রিজ লিঃ এর ম্যানেজিং ডিরেক্টর আব্দুল্লাহ আল মাহমুদ, সাবেক জাতীয় ফুটবল তারকা শেখ মোঃ আসলাম, নর্দান ইউনিভার্সিটি অব বিজনেস এন্ড টেকনোলজির রেজিস্ট্রার ড. মোঃ শাহ আলম ও মনের স্কুলের সিইও ফাইরুজ ফাইজা বিথারকে সম্মাননা ক্রেস্ট প্রদান করেন সিটি মেয়র।খবরঃ বিজ্ঞপ্তির