পবিত্র আশুরা ইতিহাসের একটি মর্মান্তিক ও বিয়োগান্তক ঘটনাঃ খুলনা সিটি মেয়র

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন, পবিত্র
আশুরা ইতিহাসের একটি মর্মান্তিক ও বিয়োগান্তক ঘটনা। ইমাম হুসাইন
(রা.) সহ তাঁর পরিবারের বাহাত্তর জন সদস্যকে ইয়াজিদ বাহিনী নির্মমভাবে
হত্যা করে। এই বেদনা বিধুর দিনটি মুসরিম উম্মাহর কাছে খুবই
তাৎপর্যপূর্ণ। আশুরার গুরুত্ব তুলে ধরে সিটি মেয়র আরো বলেন, এ দিনে
মহান আল্লাহপাক পৃথিবী সৃষ্টি, হযরত আদম (আ.)’কে সৃষ্টি, আদম (আ.) ও
তাঁর সহধর্মিনী বিবি হাওয়া (আ.) এর দোয়া কবুল করেন। এ দিনে হযরত
ইউনুস (আ.) মাছের পেট থেকে পরিত্রাণ লাভ করেন এবং এ দিনেই কিয়ামত
সংগঠিত হবে বলে বিভিন্ন গ্রন্থে উল্লেখ করা হয়েছে।
সিটি মেয়র আজ মঙ্গলবার সকালে কেসিসি পরিচালিত খালিশপুর
কলেজিয়েট গার্লস স্কুল মিলনায়তনে বিভিন্ন ইমাম বাড়িতে আর্থিক
সহযোগিতা প্রদান ও বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এ
কথা বলেন। পবিত্র আশুরা উপলক্ষে খুলনা সিটি কর্পোরেশনের পক্ষ থেকে ৩২টি
ইমাম বাড়িতে ১ লক্ষ ৩ হাজার টাকা অনুদান প্রদান করা হয়। সিটি মেয়র
বাড়ির প্রতিনিধিদের হাতে এ অর্থ তুলে দেন।
অনুষ্ঠানে সিটি মেয়র আরো বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর
রহমান স্বপরিবারে নিহত হওয়ার ঘটনাটিও আমাদের ইতিহাসের একটি
মর্মান্তিক ঘটনা। ১৯৭৫ সালের ১৫ আগস্ট স্বাধীনতা বিরোধী ঘাতক চক্র
বঙ্গবন্ধু পরিবারের শিশু রাসেলসহ সতের জনকে নির্মমভাবে হত্যা হকরে। এই
কলঙ্কজনক বেদনার ইতিহাস এ দেশের মানুষ কখনো ভুলতে পারবে না।
অনুষ্ঠানে অন্যান্যের মধ্যে কেসিসি’র কাউন্সিলর মো: মনিরুজ্জামান,
কাজী তালাত হোসেন কাউট, মুন্সী আব্দুল ওয়াদুদ, সংরক্ষিত আসনের
কাউন্সিলর পারভীন আক্তার, খালিশপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মো: জাহাঙ্গীর
হোসেন, খালিশপুর থানা আওয়ামী লীগের সহসভাপতি কাজী ফয়েজ
মাহমুদসহ আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতৃবৃন্দ এবং স্থানীয় গণ্যমান্য
ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন। দোয়া পরিচালনা করেন বায়তুল ফালাহ জামে
মসজিদের খতিব মুফতি ইবাদুর রহমান। অনুষ্ঠানে কারবালা প্রান্তরে এবং
জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু এবং তাঁর পরিবারবর্গসহ সকল শহীদদের রূহের
মাগফেরাত কামনা করে দোয়া করা হয়। খবরঃ বিজ্ঞপ্তির