ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়ার সংক্রমণ রোধে নগরীতে কেসিসি’র মোবাইল কোর্ট পরিচালিত

মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া সংক্রমণ রোধকল্পে খুলনা মহনগরী এলাকায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম জোরদারের লক্ষ্যে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন নবনির্বাচিত মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

মশাবাহিত রোগ ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়া সংক্রমণ রোধকল্পে খুলনা মহনগরী এলাকায় পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম জোরদারের লক্ষ্যে এক সভা আজ মঙ্গলবার বিকাল ৩টায় নগর ভবনের শহীদ আলতাফ মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত হয়। খুলনা সিটি কর্পোরেশনের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (যুগ্মসচিব) লস্কার তাজুল ইসলাম-এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তৃতা করেন নবনির্বাচিত মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক। নগরীতে কর্মরত বিভিন্ন বেসরকারি সংস্থার প্রতিনিধিগণ সভায় অংশগ্রহণ করেন।

সভায় নবনির্বাচিত মেয়র বলেন, রাজধানীসহ দেশের বিভিন্ন এলাকায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া রোগ ছড়িয়ে পড়েছে। খুলনা মহানগরীতে এ রোগের সংক্রমণ রোধে প্রতিরোধমূলক সকল ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। মশাবাহিত এ রোগের সংক্রমণ রোধে তিনি জনসচেতনতা বৃদ্ধির ওপর গুরুত্বারোপ করেন এবং কেসিসি’র কঞ্জারভেন্সী বিভাগের কর্মকর্তা কর্মচারীদের আরো দয়িত্বশীল ভূমিকা পালনের নির্দেশ দেন।

সভায় ডেঙ্গু সংক্রমণ প্রতিরোধে জনসচেতনতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে ব্যাপক প্রচার প্রচারনার পাশাপাশি উঠান বৈঠকের আয়োজন ও জুম্মার নামাজের সময় মসজিদে মসজিদে মুসল্লীদের সচেতন করার সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়। এছাড়া বিদ্যমান ঝোপঝাড় ও চকুরিপানা পরিস্কারসহ নিজ নিজ বাড়ির আঙ্গিনা পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা নিশ্চিত করতে মোবাইল কোর্ট পরিচালনারও সিদ্ধান্ত গ্রহণ করা হয়।

নবনির্বাচিত মেয়র আরো বলেন, খুলনাকে সুন্দর ও পরিচ্ছন্ন নগরী হিসেবে গড়ে তুলতে আমরা নিরলসভাবে কাজ করছি। নগরীর ড্রেন, ফুটপাথ রাস্তাঘাটের পরিচ্ছন্নতার কাজ আরো গতিশীল করার বিষয়ে মতামত তুলে ধরে তিনি নির্দিষ্ট স্থানে বর্জ্য ফেলতে নগরবাসীর সহযোগিতা কামনা করেন। একইসাথে তিনি ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়ার সংক্রমণ রোধে নিজ নিজ এলাকায় একযোগে কাজ করার জন্য সকল জনপ্রতিনিধিদের প্রতিও আহবান জানান।

কেসিসি’র প্রধান বর্জ্য ব্যবস্থাপনা কর্মকর্তা প্রকৌশলী মো: আব্দুল আজিজ, এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট জান্নাতুল আফরোজ স্বর্ণা, কঞ্জারভেন্সী অফিসার প্রকৌশলী মো: আনিসুর রহমান, সহকারী কঞ্জারভেন্সী অফিসার নুরুন্নাহার এ্যানী, মোল্লা মারুফ রশীদ ও মো: জিয়াউর রহমান, কেসিসি’র তত্ত্বাবধানে পরিচালিত প্রান্তিক জনগোষ্ঠীর জীবনমান উন্নয়ন প্রকল্পের টাউন ম্যানেজার মোহাম্মদ মোস্তফা, বেসরকারি সংস্থা রূপায়ন-এর নির্বাহী পরিচালক মো: খালিদ হোসেন, কারিতাস-বাংলাদেশের প্রোগ্রাম অফিসার জেমস সুকুমার মন্ডল, প্রদীপন-এর আঞ্চলিক সমন্বয়কারী কামাল আহমেদ চৌধুরী, সিয়াম’এর নির্বাহী পরিচালক এ্যাড. মো: মাসুম বিল্লাহ, জাগ্রত যুব সংঘের ফিল্ড কোঅর্ডিনেটর নব কুমার সাহা, রাসটিক-এর নির্বাহী পরিচারক মোড়ল নূর মোহাম্মদ, মুক্তির আলোর নির্বাহী পরিচারক নিয়ামুল করিম ফিনিক্স, ব্রাক-এর কমিউনিটি আর্কিটেক্ট মো: আশরাফুল আলম, মাসাস-এর পরিচালক এম এ বাতেন, নবলোক-এর প্রজেক্ট অফিসার সুজানা লোপা বাড়ৈ, কানশিপ-এর চেয়ারম্যান রেহেনা পারভীন, সিডিসি টাউন ফেডারেশনের সভাপতি রোকেয়া রহমান প্রমুখ সভায় বক্তৃতা করেন ও উপস্থিত ছিলেন।

সকাল সাড়ে ১০টায় ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া সংক্রমণ প্রতিরোধে নগরীতে পরিস্কার-পরিচ্ছন্নতা কার্যক্রম জোরদার করার লক্ষ্যে কেসিসি’র এক্সিকিউটিভ ম্যাজিষ্ট্রেট জান্নাতুল আফরোজ স্বর্ণা’র নেতৃত্বে সোনাডাঙ্গা বাসস্ট্যান্ডসহ বিভিন্ন এলাকায় ভ্রাম্যমান আদালত পরিচালিত হয়।খবরঃ বিজ্ঞপ্তির