জ্বালানীসহ দ্রব্যমুল্যের ঊর্ধ্বগতির প্রভাব বর্তমানে উন্নয়নের প্রতিবন্ধক হয়ে দণ্ডায়মান

।। সম্পাদকীয়।।

রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধ গোটা বিশ্বরই অর্থনৈতিক স্থবিরতা এনে দিয়েছে। বাংলাদেশে আওয়ামীলীগ প্রায় ১৪ বছর বা তার থেকে কিছু বেশী সময় সরকার পরিচালনায় দায়িত্বে রয়েছে।বর্তমানে দেশের সার্বিক অগ্রগতি দৃশ্যমান ।তবে এর মধ্য মহামারী কভিড এবং রাশিয়া- ইউক্রেন যুদ্ধের বৈশ্বিক মন্দা অন্যান্য দেশের মত বাংলাদেশেও তার প্রভাব পড়েছে ।রাশিয়া- ইউক্রেন যুদ্ধের ত্বরিত প্রভাব পড়ার বিশেষ কারণ যুক্তরাষ্ট্র ও ইউরোপের মৌলিক কিছু নিসেধাজ্ঞা ।যার প্রভাব গোটা বিশ্বের ওপরই পড়েছে।

যে কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগ- বৈশ্বিক মহামারি কিংবা বৈশ্বিক মন্দার প্রভাবকে কোন দেশের দায়িত্বে থাকা সরকারকে দোষারোপ করাটা -আদৌ সঠিক নয়। রাজনৈতিক প্রতিপক্ষের অতিরঞ্জিত উপস্থাপন -থাকতেই পারে।তবে সাম্প্রতিক বাংলাদেশের জ্বালানীসহ নিত্য প্রয়োজনীয় পণ্যের মুল্য অতিমাত্রায় বেড়ে যাওয়ার প্রভাব সাধারণ মানুষের ওপর পড়েছে।উক্ত অবধারিত বাস্তবতাকে সামাল দেওয়ার কার্যকারী পদক্ষেপ সরকার কিছু কিছু ক্ষেত্রে নিয়েছেন।আবার কোন কোন সেক্টরে নেওয়ার বিসয়টি প্রক্রিয়াধীন। আর সে সবের ইতিবাচক ফলাফল আসতে সরকারকে সময় দেওয়াটা প্রয়োজন ।যদিও রাজনৈতিক প্রতিপক্ষরা সরকারের ত্রুটি আর যে কোন দুর্বলতাকে অতিরঞ্জিত করে ব্যাবহার করবে -সেটা স্বাভাবিক ।
কিন্ত কার্যত বর্তমান আওয়ামীলীগ সরকারের দেশের প্রতি দায়বদ্ধতা নিয়ে কাজ করার সার্বিক অর্জন জ্বালানী আর নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য মুল্যের ঊর্ধ্বগতি বড় রকমের প্রতিবন্ধক হিসাবে বর্তমানে দাঁড়িয়েছে ।আর ক্ষমতাসীন সরকারের দেশের উন্নয়ন সম্বলিত অর্জন যেন -বুমেরং না হয়ে যায়, সে সব দিকের প্রতি সরকারের বাস্তবিক পদক্ষেপ নেওয়াটা অতি সত্ত্বর প্রয়োজন ।