জাহাঙ্গীর আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল।।তার মায়েরটা বৈধ

নিউজ ডেস্কঃ
গাজীপুর সিটি করপোরেশন নির্বাচনে সাবেক মেয়র জাহাঙ্গীরের মনোনয়নপত্র বাতিল হয়েছে। তবে তার মা জায়েদা খাতুনের মনোনয়নপত্র বৈধ বলে জানিয়েছেন রিটার্নিং কর্মকর্তা।

আজ রোববার (৩০ এপ্রিল) গাজীপুরের বঙ্গতাজ মিলনায়তনে অবস্থিত রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয় থেকে জাহাঙ্গীরের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়। রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম বলেন, ঋণ খেলাপি হওয়ায় জাহাঙ্গীর আলমের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

রোববার সকাল থেকে রিটার্নিং কর্মকর্তার কার্যালয়ে গাজীপুর সিটি নির্বাচনে মনোনয়নপত্র যাচাই-বাছাই চলছে। এ সময় সেখানে উপস্থিত ছিলেন জাহাঙ্গীর আলম।

এছাড়া স্বতন্ত্র প্রার্থীর মধ্যে ৩০০ জন সমর্থনকারীর স্থলে ২৩৯ জনের স্বাক্ষর দিয়ে মনোনয়নয়পত্র জমা দেয়ায় অলিউর রহমান ও যথাযথ কাগজপত্র না থাকা এবং ৩০০ জনের সমর্থনের স্থলে ১৮৪ জনের সমর্থনকারীর স্বাক্ষর জমা দেয়ায় স্বতন্ত্র প্রার্থী আবুল হোসেনের মনোনয়নপত্র বাতিল করা হয়েছে।

তবে যেহেতু সময় আছে। তাদের এ ব্যাপারে আপিল করার সুযোগ রয়েছে বলে জানান রিটার্নিং কর্মকর্তা মো. ফরিদুল ইসলাম।

১২ জন প্রার্থী মনোনয়নপত্র জমা দিলেও কাগজপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর ৩ জনের মনোনয়ন বাতিল করা হয়েছে।

জাহাঙ্গীর আলমের মনোনয়ন বাতিল প্রসঙ্গে রিটার্নিং কর্মকর্তা ফরিদুল ইসলাম বলেন, একটি পোশাক কারখানার ঋণের গ্যারান্টার ছিলেন জাহাঙ্গীর আলম। ওই প্রতিষ্ঠানটি ঋণ খেলাপি হওয়ার কারণে গ্যারান্টার হিসেবে তার মনোনয়নপত্রটি বাতিল বলে গণ্য করা হয়।

জাহাঙ্গীর আলম বলেন, আমার প্রতি অবিচার করা হয়েছে। পক্ষপাতিত্ব করা হয়েছে। আমি উচ্চ আদালতে আপিল করবো। আমি আশা করি আপনাদের কাজে যেন নিরপেক্ষতা থাকে। অনলাইন।

নির্বাচন কমিশন ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী, প্রার্থিতা প্রত্যাহারের শেষ দিন ৮ মে। প্রতীক বরাদ্দ হবে ৯ মে। আগামী ২৫ মে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হবে।

উল্লেখ্য, গাজীপুর সিটি নির্বাচনে মেয়র পদে প্রার্থী হওয়ার জন্য দলীয় মনোনয়ন চেয়েছিলেন জাহাঙ্গীর আলম। তবে দল মনোনয়ন দিয়েছে মহানগর আওয়ামী লীগের সভাপতি আজমত উল্লা খানকে।