জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন উপলক্ষ্যে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালা অনুষ্ঠিত

বাংলাদেশ থেকে অপুষ্টিজনিত অন্ধত্ব নির্মূল এবং শিশুমৃত্যু প্রতিরোধ করার জন্য আগামী ১৮ জুন (একদিন) সারাদেশে পালিত হবে জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন। এ উপলক্ষ্যে আজ (বৃহস্পতিবার) দুপুরে নগরীর স্কুল হেলথ ক্লিনিকের সম্মেলনকক্ষে সাংবাদিকদের ওরিয়েন্টেশন কর্মশালায় সভাপতিত্ব করেন খুলনার সিভিল সার্জন ডাঃ সুজাত আহমেদ।

সভাপতির বক্তব্যে সিভিল সার্জন বলেন, জাতির ভবিষ্যৎ শিশুদের কথা চিন্তা করে সরকার জাতীয় ভিটামিন ‘এ’ প্লাস ক্যাম্পেইন চালু করেছে। সকলের সার্বিক প্রচেষ্টায় দেশে মাতৃমৃত্যু ও শিশুমৃত্যুহার হ্রাস পেয়েছে, টিকাদানের হার বৃদ্ধি পেয়েছে। ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুলের কোন পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া নেই। শিশুদের ভরাপেটে এটি খাওয়াতে হবে। ভিটামিন ‘এ’ ক্যাম্পেইনে কোন শিশু যাতে বাদ না পড়ে সে জন্য অভিভাবকদের দায়িত্ব হলো শিশুদের টিকাকেন্দ্রে নিয়ে আসা। এই ক্যাম্পেইন সফল করতে সিভিল সার্জন গণমাধ্যমকর্মীদের সহযোগিতা কামনা করেন।

সভায় জানানো হয়, খুলনা মহানগরীতে মোট এক লাখ ১৭ হাজার ৫৭জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬-১১ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা ১৩ হাজার পাঁচ শত ৭৩ জন এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা এক লাখ তিন হাজার চারশত ৮৪ জন । এছাড়া খুলনা জেলার নয়টি উপজেলা এবং দুইটি পৌরসভার মোট ১ লাখ ৮৮ হাজার সাতশত ৪৭ জন শিশুকে ভিটামিন ‘এ’ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এর মধ্যে ৬-১১ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা ২৩ হাজার ৯৪ জন এবং ১২-৫৯ মাস বয়সী শিশুর সংখ্যা ১ লাখ ৬৫ হাজার ছয়শ ৫৩জন।

এবছর সিটি কর্পোরেশনের ৩১টি ওয়ার্ডে ৭২০ টি কেন্দ্রে মোট এক হাজার চারশত ২০জন ভলান্টিয়ার এ কাজে দায়িত্ব পালন করবে । এছাড়া খুলনা জেলার ০৯টি উপজেলা ও দুইটি পৌরসভায় মোট টিকাকেন্দ্রর সংখ্যা এক হাজার সাতশ ১৮টি। এর মধ্যে আউটরীচ টিকাদান কেন্দ্র এক হাজার ছয়শ ৩২টি, স্থায়ী টিকাদান কেন্দ্র ০৯টি, অতিরিক্ত কেন্দ্র ৬৮টি এবং ভ্রাম্যমান টিকাদান কেন্দ্র ৯টি। জেলা পর্যায়ের কার্যক্রমে মোট স্বেচ্ছাসেবকের সংখ্যা তিন হাজার চারশ ৩৪ জন, সরকারি মাঠকর্মীর সংখ্যা ৬৭৭ জন এবং বেসরকারি মাঠকর্মীর সংখ্যা দুই হাজার সাতশত ৫৯ জন।

কর্মশালায় কেসিসি’র প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তা স্বপন কুমার হালদার, খুলনা আঞ্চলিক তথ্য অফিসের উপপ্রধান তথ্য অফিসার এ এস এম কবীর, প্রেসক্লাবের সভাপতি এস এম নজরুল ইসলাম, ডেপুটি সিভিল সার্জন ডাঃ এএসএম কামাল হোসেন প্রমুখ বক্তব্য রাখেন। খুলনা সিভিল সার্জন দপ্তর এবং সিটি কর্পোরেশন যৌথভাবে এই অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

কর্মশালায় সরকারি দপ্তরের কর্মকর্তা, ইলেক্ট্রনিক ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকরা অংশ নেন।খবরঃ বিজ্ঞপ্তির