খুলনাকে আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে একাত্ম হয়ে কাজ করতে হবেঃ কেসিসি মেয়র 

এশিয়া রিজিলিয়েন্ট সিটিস প্রোজেক্ট আয়োজিত ‘‘ডেভেলপ একশন প্লান ফর খুলনা সিটি’’ শীর্ষক কর্মশালার উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করেন কেসিসি মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক বলেছেন খুলনাকে সুন্দর, পরিচ্ছন্ন ও আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তুলতে সকলকে একাত্ম হয়ে কাজ করতে হবে। তিনি বলেন মহানগরীর উন্নয়নের স্বার্থে সকল সংস্থার মধ্যে সমন্বয় থাকা প্রয়োজন। তা না হলে খুলনাকে আধুনিক শহর হিসেবে গড়ে তোলা অসম্ভব হয়ে পড়বে।
সিটি মেয়র আজ (সোমবার) সকালে নগরীর হোটেল সিটি ইনে অনুষ্ঠিত এশিয়া রেজিলিয়েন্ট সিটিস (এআরসি) শীর্ষক প্রকল্পের কর্ম পরিকল্পনা প্রণয়ন বিষয়ক দুই দিনব্যাপী কর্মশালার উদ্বোধনী দিনে প্রধান অতিথির বক্তৃতা করছিলেন। খুলনা সিটি কর্পোরেশন ও এআরসি প্রকল্পের যৌথ অংশীদারিত্বে এ কর্মশালার আয়োজন করে।
তিনি আরো বলেন, শহরের জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল খনন ও ড্রেন পুননির্মাণের কাজ চলছে। শহর রা বাঁধ, নদীর পাড় বাঁধাই, ¯øুইস গেট পুননির্মাণ ও পাম্প স্টেশন নির্মাণের উদ্যোগ গ্রহণ করা হয়েছে। পাশাপাশি তিনি ভৈরব ও রূপসা নদীর নাব্যতা হ্রাস পাওয়ায় এ দুটি নদী খননের উপর গুরুত্বারোপ করেন। তিনি বলেন মহানগীরর সড়ক, ২২ টি মোড় ও ড্রেন উন্নয়নসহ আরো কয়েকটি সেকেন্ডারী ট্রান্সফার ষ্টেশন (এসটিএস) ও আধুনিক বর্জ্য ব্যবস্থাপনা প্রকল্প গ্রহণ করা হয়েছে। এসকল প্রকল্পের কাজ বাস্তবায়নের পাশাপাশি মহানগরীর উন্নয়নে সহযোগী সংস্থা এগিয়ে আসলে অচিরেই খুলনা আধুনিক শহরে পরিনত হবে।
কেসিসি’র সচিব মোঃ আজমুল হক এর সভাপতিত্বে কর্মশালায় অন্যান্যের মধ্যে খুলনা বিশ^বিদ্যালয়ের প্রফেসর ড. আশিকুর রহমান, খুলনা ওয়াসার ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোঃ আব্দুল্লাহ পিইঞ্জ, কেসিসির প্রধান প্রকৌশলী মশিউজ্জামান খান, চীফ প্লানিং অফিসার আবির উর জব্বার, ইউএসএআইডি’র ভ‚তাত্বিক তথ্য বিশ্লেষক জাহিদ ফারুক, প্রকল্পের এ্যাসিসট্যান্ট ডেপুটি ডাইরেক্টর ফারহানা আফরোজ, ব্রাকের হেড অব আরবান প্রোগ্রাম ইমামুল আজম শাহী, প্রমুখ বক্তৃতা করেন।
উল্লেখ্য জলবায়ু সহিঞ্চু পরিবেশ বান্ধব উপযোগী ও দায়িত্বশীল নাগরিক গড়ে তোলার লক্ষ্যে উন্নয়ন সহযোগী সংস্থা ইউএসএআইডি’র অর্থায়নে এশিয়ান রেজিলিয়েন্ট সিটিস (এরআরসি) প্রকল্প আগামী ৫ বছর খুলনা মহানগরীর উন্নয়নে সহযোগিতা করবে। দাতা সংস্থার প্রতিনিধি, বেসরকারি সংস্থা ও সুশীল সমাজের প্রতিনিধিগণের উপস্থিতিতে খুলনা শহরের মূল সমস্যা ও সম্ভাবনাগুলো চিহ্নিতকরণের লক্ষ্যে এ কর্মশালার আয়োজন করা হয়।