খুনিচক্র জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তানকে হত্যা করে জাতির কপালে কালিমা লেপন করেছেঃ শ্রম প্রতিমন্ত্রী

শ্রম ও কর্মসংস্থান প্রতিমন্ত্রী বেগম মন্নুজান সুফিয়ান বলেছেন, স্বাধীনতা বিরোধীদের দোসর, সম্রাজ্যবাদী শক্তি, খুনি চক্র বাঙালি জাতির শ্রেষ্ঠ সন্তান জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে সপরিবারে হত্যা করে বাঙালি জাতির কপালে কালিমা লেপন করেছে।

তিনি আজ (রবিবার) সন্ধ্যায় খুলনা মহানগরীর খালিশপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয় প্রাঙ্গণে ১৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগ ও এর অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠন আয়োজিত জাতির পিতার ৪৭তম শাহাদত বার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে শোক সভায় প্রধান অতিথির বক্তৃতায় এসব কথা বলেন।  অনুষ্ঠানে প্রধান বক্তা ছিলেন খুলনা সিটি কর্পোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক।

শ্রম প্রতিমন্ত্রী বলেন, আজকে শোককে শক্তিতে রূপান্তর করে শেখ হাসিনার হাতকে শক্তিশালী করে রূপকল্প- ২০৪১ বাস্তবায়ন করতে হবে। উন্নত সমৃদ্ধ এবং জাতির পিতার সোনার বাংলা গড়ে তুলতে আগামী প্রজন্মের জন্য একুশ’শ সালের মধ্যে ডেলটা প্ল্যান বাস্তবায়নে সকলকে এগিয়ে আসতে হবে।

প্রধান বক্তা সিটি মেয়র বলেন, জীবিত মুজিব এঁর চেয়ে মৃত মুজিব আরো বেশি শক্তিশালী। বঙ্গবন্ধুর কলঙ্কজনক হত্যাকান্ডের পর এর সাথে জড়িতরা এদেশ থেকে বঙ্গবন্ধুর নাম মুছে ফেলতে চেয়েছিলো, তারা সফল হতে পারেনি।  আজকের দিনটি জাতির জীবনে সবচেয়ে বেশি বেদনার দিন। কারণ যাঁর জন্ম না হলে এদেশ স্বাধীন হতো না সেই বঙ্গবন্ধুকে এই দিনে হত্যা করা হয়। বঙ্গবন্ধু আজ আমাদের মাঝে না থাকলেও আমাদের মাঝে আছেন জাতির পিতার সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনা। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ আজ উন্নয়নের রোল মডেল। শেখ হাসিনার নেতৃত্বে ২০৪১ সালের মধ্যে বাংলাদেশ উন্নত সমৃদ্ধ দেশে রূপান্তরিত হবে বলে তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন।

খুলনা সিটি কর্পোরেশনের ১৫ নম্বর ওয়ার্ড আওয়ামী লীগের সভাপতি মো. শফিউল্লাহ এর সভাপতিত্বে খুলনা মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এমডি এ বাবুল রানা, সহসভাপতি শেখ শহিদুল ইসলাম,  যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মো. আশরাফুল ইসলাম এবং ১৫ নম্বর ওয়ার্ড কাউন্সিলর আমিনুল ইসলাম মুন্না বক্তৃতা করেন। অনুষ্ঠান শেষে বাংলাদেশ শ্রমিক কল্যাণ ফাউন্ডেশন থেকে দুরারোগ্য ব্যাধিতে আক্রান্ত ১৫ জন শ্রমিকে সাড়ে ৭ লাখ টাকা চিকিৎসা সহায়তার চেক প্রদান করেন।

এর আগে প্রতিমন্ত্রী খালিশপুর মাধ্যমিক বালিকা বিদ্যালয়ের ৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ব্যয়ে নবনির্মিত ছয়তলা বিশিষ্ট নতুন ভবন উদ্বোধন করেন। ভবন নির্মাণ প্রকল্প বাস্তবায়ন করেছে শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তর। খবরঃ বিজ্ঞপ্তির