আ”লীগ যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করেছেঃ সেখ জুয়েল এমপি 

ফাইল ছবি।

খুলনা-২ আসনের সংসদ সদস্য সেখ সালাহউদ্দিন জুয়েল বলেছেন, একসময় খুলনা থেকে মাওয়াঘাট পার হয়ে ঢাকা যেতে হলে একদিন আগে থেকে প্রস্তুতি নিতে হতো। পদ্মা সেতু চালু হওয়ার পরে এখন সকালে গিয়ে কাজ শেষ করে আবার বিকালে ফিরে আসা যায়। শিকিরহাট ফেরি চালু হলে যাতায়াতকারীদের পরিবহন খরচ ও সময় দু’টোই সাশ্রয় হবে। ঢাকার সাথে খুলনার দুরত্ব কমবে প্রায় ৪০ কিলোমিটার। শিকিরহাটে আপাতত ফেরি চালু হলেও এটি বেশিদিন চলমান থাকবে না। খুব শীঘ্রই এখানে ব্রীজ নির্মাণ করা হবে। তখন দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের (খুলনা, ফুলতলা, ডুমুরিয়া, চুকনগর, কেশবপুর, আঠারোমাইল, সাতক্ষীরা, যশোর ও ভোমরা স্থল বন্দরের) মালামাল পরিবহণ খরচ ও সময় সাশ্রয় হবে। তিনি আরও বলেন, নদীমাতৃক আমাদের এই দেশে নদীর নাব্যতা বজায় রাখা অতি জরুরী। এজন্য আমরা রূপসা ও ভৈরব নদী ড্রেজারের মাধ্যমে খননের জন্য প্রস্তুতি গ্রহণ করছি। ইতোমধ্যে এ ব্যাপারে প্রধানমন্ত্রীর সাথে আলোচনা হয়েছে। ‘৭৫ পরবর্তী কোনো সরকার নদী খননের কথা চিন্তাই করেনি। আওয়ামী লীগ সরকার যখনই ক্ষমতায় এসেছে তখনই দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের মানুষের ভাগ্যের পরিবর্তন করেছে। গতকাল বুধবার বেলা ১২ টায় শিকিরহাট ফেরিঘাট উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।
খুলনার বিভাগীয় কমিশনার মো. হেলাল মাহমুদ শরীফের সভাপতিত্বে অন্যানের মাঝে বক্তৃতা করেন, খুলনা-৫ আসনের সংসদ সদস্য ও সাবেক মন্ত্রী নারায়ন চন্দ্র চন্দ, সড়ক ও জনপথের বিভাগীয় প্রকৌশলী সৈয়দ আসলাম আলী, জেলা প্রশাসক খন্দকার ইয়াসির আরেফিন, পুলিশ সুপার মো. সাঈদুর রহমান, ফুলতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ও উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান শেখ আকরাম হোসেন।  জাতীয় ক্রীড়া ভাষ্যকার ড. সাঈদুর রহমানের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে এ সময়ে উপস্থিত ছিলেন খুলনার স ও জ নির্বাহী প্রকৌশলী আনিসুজ্জামান মাসুদ, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক পুলক কুমার মন্ডল, জেলা আওয়ামী লীগের ধর্ম বিষয়ক সম্পাদক তারিক হাসান মিন্টু, মহানগর আওয়ামী লীগের নির্বাহী সদস্য কাজী জাহিদ হোসেন, খুলনা জেলা পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান ও জেলা যুবলীগের সভাপতি চৌধুরী মোহাম্মাদ রায়হান ফরিদ, জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি শেখ মো. আবু হানিফ, নগর স্বেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এম এ নাসিম, ফুলতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক মৃনাল হাজরাসহ দলীয় ও প্রশাসনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতৃবৃন্দ।
অনুষ্ঠানের শুরুতে ১৫ আগস্টে নিহত জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানসহ তার পরিবারের সকল সদস্যদের প্রতি শ্রদ্ধা জানিয়ে ১ মিনিট নিরবতা পালন করা হয়।খবরঃ বিজ্ঞপ্তির